শুক্রবার, ২৩শে মে, ২০১৯ ইং, ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

Bengali Bengali English English

শিরোনাম

ক্রাইম প্রতিবেদক:

জানা যায় টেকনাফের ইয়াবা গড নুরুজ্জামান প্রকাশ জামাল মাষ্টার এবং তার ছেলে সালাহ উদ্দিনের ইয়াবা ব্যাবসা থেমে নেই!

মাদকের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করার পর থেকে এ পর্যন্ত অনেক মাদক কারবারী মারা গেছে অনেকে আবার আত্মসমর্পণ করেছে এহেন পরিস্থিতিতে ও কৌশলে ইয়াবা ব্যাবসা সহ ভিবিন্ন অবৈধ কর্মকান্ড করে অবৈধ টাকার পাহাড় গড়ে তুলতেছে টেকনাফ নাজিরপাড়ার ইয়াবা গড নুরুজ্জামান প্রকাশ জামাল মাষ্টার এবং তার ছেলে সালাহ উদ্দিন৷

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীসহ কক্সবাজারের পুলিশ সুপারএবং কক্সবাজার জেলায় কর্মরত র্যাব ভাইদের বিশেষত টেকনাফ থানার ওসি প্রদিপ কুমার দাশ কে দৃষ্টি আকর্ষন করে বলতেছি আপনারা সবাই বাংলাদেশ কে মাদক মুক্ত করতে চেষ্টায় আছেন তাই আপনারা চাইলে পারেন এই বাপ বেটার ইয়াবা সিন্ডিকেট কে আইনের আওতায় আনতে৷

নাজির পাড়ার একজন বাসিন্দা জানান এই বাপ বেটা সিন্ডিকেট কে দমন করতে পারলে আমাদের নাজির পাড়া ইয়াবা মুক্ত হবে৷

তাই আমরা নাজির পাড়বাসী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সপ্ন বাস্তবায়নে মাদক মুক্ত টেকনাফ তথা নাজির পাড়া উপহার দিতে প্রশাসনের সাহায্য কামনা করে বলতেছি দ্রুত এই নুরুজ্জামান এবং ছেলে সালাহ উদ্দিন কে গ্রেফতার করুন৷

আমরা টেকনাফের সাধারন মানুষ গরীব দুঃখী মেহেনতী মানুষ ৷
অত এব মহোদয়! আমাদের টেকনাফ এক সময় ইয়াবা পল্লী ছিল। মাননীয় প্রধান মন্ত্রী যখন মাদক নির্মূলের যুদ্ধ ঘোষনা দেন।

মাননীয় পুলিশ সুপার মহোদয় আপনার সততার গুণে যখন টেকনাফ তথা কক্সবাজার অলিগলি ইয়াবা পল্লীতে মাদক নির্মূলের কাজ শুরু করেছেন, আলহামদুলিল্লাহ শত শত ইয়াবা পল্লী বন্ধ হয়েগেছে।

মাননীয় মহোদয় আমাদের প্রতিজ্ঞা কক্সবাজারে আপনার মতো সাহসীকতায় আন্তরিক দিয়ে মাদক নির্মূলন করার কেও ছিলনা-তা’তে আপনার মত একজন মাদক যুদ্ধা পেয়ে আমরা অনেক খুশী এবং আসাবাদী৷

মহোদয়!
আমরা আপনার সততা কে স্যালুট জানাই, আমাদের গ্রামে বর্তমান ইয়াবা ব্যবসায়ী মোটেও নাই বল্লে চলে,

মহোদয় তবে আমরা এখনো এক ইয়াবা পরিবার এর হাতে জিম্মি যে পরিবার প্রতিনিয়ত অভিনব কায়দায় ইয়াবা ব্যাবসা করে পুরো টেকনাফবাসী কে বাঁচতে দিচ্ছে না

মহোদয়! আপনি চাইলে আমাদেরকে মাদকের আখড়া থেকে বাঁচাতে পারবেন, আপনি মাদক নির্মূল করার পরিশ্রম করার পরেও সেই ইয়াবা পরিবারের ইয়াবা ব্যাবসা থেমে নেই৷

সেই পরিবার হল টেকনাফ নাজির পাড়া গ্রামের বাসিন্দা ইয়াবা ডন #নুরুজ্জামান_প্রকাশ_মাষ্টার জামাল তার পুত্র #ইয়াবা_ডন #সালাহ_উদ্দিন নুরুজ্জামান প্রকাশ জামাল মাষ্টারের জন্মগত ঠিকানা বরিশাল, নাজির পাড়া গ্রাম থেকে বিয়ে করে ইয়াবার কারবার চালু করেছে৷

টেকনাফে বন্ধুকযুদ্ধে কিছু ইয়াবা ব্যাবসায়ী মারা গেলে কিছু দিন ইয়াবা ব্যবসা বন্ধ রাখে ৷ পরে তার নিজের ছেলে সালাহ উদ্দিনের মাধ্যমে আবারও ইয়াবার সিন্ডিকেট শুরু করেছে৷

আরো একটি খবর শুনে নিশ্চয় আপনি বিশ্মিত হবেন যে কিছু দিন পূর্বে তার ছেলে সালাহ উদ্দিন ঢাকা ইয়াবা চালান পাঠাতে গিয়ে ধরা পড়ে যান এক জন বহনকারী। ইয়াবার মূল মালিক খোঁজতে গিয়ে বহনকারী শিখার করল, আমি গরীব মানুষ আমাকে টাকা দিয়া পাঠিয়েছে নুরুজ্জামানের পুত্র সালাহ উদ্দিন।

মহোদয় আপনি টেকনাফ থানায় খোঁজ নিলে বেরিয়ে আসবে মূল তথ্য। গত ১৯ সনের জানুয়ারিতে টেকনাফ থানার পুলিশ তদন্তের জন্য তার বাড়িতেও গিয়েছিল। ইয়াবা গর্ডফাদার নুরুজ্জামান মামলা তদন্তকারী অফিসার কে মোটা অংকের টাকা দিয়া তার ছেলে সালাহ উদ্দিন কে মামলা থেকে বাদ দিতে অনেক চেস্টা করতেছে। সে নুরুজামান বিভিন্ন অভিনব কায়দা ইয়াবা ব্যবসা করে দশ তলা ভবনের বিলাশবহুল বাড়িও করেছে।

মহোদয়! সে আরো একটি জঘন্য অপরাধ করে যাচ্ছে তা হল সে টেকনাফ নাজির পাড়া এলাকার ইয়াবা ব্যবসায়ীদের হাত থেকে বিভিন্ন কৌশলে ভয় ঢুকিয়ে সময়ে সময়ে অনেক টাকা হাতিয়ে নিতেছে৷

নুরুজ্জামান মানুষের কাছে বলে আমার পূর্বের বাড়ি ছিল ঢাকা বরিশাল, তাই দেশের বাড়ির অনেক পুলিশজন টেকরাফ থানায় আছে তাদের দিয়ে তোমাদের কে জেলে পাঠাব এরকম গ্রেফতারের এবং ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদা নেই৷

আর কিছু ব্যাবসায়ীদের বলে তুমার নামে থানায় মামলা বা অভিযোগ আছে তুমাকে গ্রেফতার না করার ব্যাবস্থা করতে চাইলে আমাকে টাকা দাও আমি করে দিব৷

এরকম থানার প্রভাব দেখিয়ে প্রতিনিয়ত অনেক টাকা হাতিয়ে নিতেছে৷

সে প্রশাসনের চোঁখ ফাকি দেওয়ার আরেক কৌশল৷
তা হল তার নামের পূর্বে মাষ্টার নাম ব্যবহার করে এলাকার লোকজন তাকে মাষ্টার জামাল হিসাহে চেনে তাই সে প্রশাসনকে মিথ্যা অভিনয় করে বলে আমি একজন প্রতিষ্ঠানের মাষ্টার৷

নাজির পাড়া বাসী জানান সে কোন প্রতিষ্ঠানিক মাষ্টার নয়৷

শুধু কৌশল করে অভিনব কায়দায় ইয়াবা ব্যাবসা করতে এরকম ভূয়া দাবী করে৷

চলমান মাদক যুদ্ধের অভিযান থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য আরেকটি নতুন কৌশল বের করে (যেমন তার কাল টাকার গড় বিলাশবহুল বাড়ি প্রশাসন গুড়িয়ে দেওয়ার ভয়ে বাড়ির উপর এবতেদায়ী মাদ্রাসা বলে বিশাল একটি ভূয়া স্যানবোর্ড লাগিয়েছে)

আপনার প্রতিষ্ঠানের বা পণ্যের বিজ্ঞাপন দিয়ে অনলাইন প্রকাশনাকে উৎসাহিত করুন। বিজ্ঞাপন দিতে যোগাযোগ করুনঃ

ই-মেইলঃ dainikteknafnews85@gmail.com

ফোনঃ 01815542234

এ ওয়েবসাইটের কোন ছবি বা নিউজ অনুমতি ছাড়া নকল বা প্রকাশ করা সম্পূর্ন বেআইনী ।

সুমন রেজা, টেকনাফ

অফিস: আল-জামেয়া মার্কেট,  টেকনাফ, কক্সবাজার,

যোগাযোগঃ 01815542234